1. [email protected] : admin :
  2. [email protected] : editor :
  3. [email protected] : moshiur :
মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪, ০৮:৫২ পূর্বাহ্ন

সাংবাদিক নাদিম হত্যা : উত্তরা প্রেসক্লাবের প্রতিবাদ সভা ও মানববন্ধন পালিত

স্টাফ রিপোর্টার :
  • প্রকাশের সময় : শনিবার, ১৭ জুন, ২০২৩
  • ১৪৫ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

অনলাইন নিউজ পোর্টাল বাংলানিউজ টোয়েন্টি ফোর.কমের জামালপুর জেলা প্রতিনিধি ও একাত্তর টিভির সংবাদদাতা গোলাম রাব্বানী নাদিম দুর্বৃত্তদের হামলায় খুন হয়েছেন। সাংবাদিক নাদিমের নৃশংস হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় বিচারের দাবীতে প্রতিবাদ সভা ও মানববন্ধন করেছেন রাজধানীর উত্তরা প্রেসক্লাব।

আজ শনিবার (১৭ জুন) বেলা ১১ টায় রাজধানী উত্তরা পূর্ব থানার পাশে ঢাকা বিমানবন্দর টঙ্গি মহাসড়কে উত্তরা প্রেসক্লাবের পক্ষ থেকে এ ঘটনার নিন্দা জানিয়ে এক প্রতিবাদ সভা ও মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করা হয়। মানববন্ধন বেলা ১১ টায় শুরু হয়ে ১২ টায় শেষ হয়।

উত্তরা প্রেসক্লাবের সভাপতি মো: বদরুল আলম মজুমদারের সভাপতিত্বে এবং ক্লাবের সহ-সাধারণ সম্পাদকের সঞ্চালনায় প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, ক্লাবের সাবেক সভাপতি রফিকুল ইসলাম (দৈনিক যুগান্তর), সাবেক সভাপতি মো: রাসেল খান,( মানবকন্ঠ) প্রেসিডিয়াম সদস্য ও নির্বাচন কমিশনার মনির হোসেন জীবন,(বাসস) সিনিয়র সাংবাদিক শেখ জুয়েল আদনান, সাধারণ সম্পাদক মো: দেলোয়ার হোসেন (যুগান্তর), সাপ্তাহিক মহানগর বার্তা পত্রিকার সম্পাদক ও প্রকাশক মো: আসাদুজ্জামান (রােজ), দৈনিক আমার প্রানের বাংলাদেশ পত্রিকার সম্পাদক ও প্রকাশক মো: আব্দুল্লাহ আল মামুন, টাপুরটুপুর পত্রিকার সম্পাদক মো: মাসুম বিল্লাহ, একে আজাদ, (বিজয় টিভি), সিনিয়র সদস্য বাবুল বিক্রমপুরী, হুমায়ন কবির, ইয়াসিন, উত্তরা প্রেসক্লাবের নারী বিষয়ক সম্পাদক মাহমুদা আক্তার পুষন, মো: রিপন, শাকিবুল হাসান, কার্যনির্বাহী কমিটির সব সদস্য ও অন্যান্য নেতারা এসময় উপস্থিত ছিলেন।

এ সময় সাংবাদিকরা বলেন-জামালপুরের বকশীগঞ্জে ৭১ টেলিভিশনের সাংবাদিক গোলাপ রাব্বানী নাদিমকে প্রকাশ্য পিটিয়ে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা, এ ঘটনায় চারজনকে আটক করেছে পুলিশ, সেই সাথে এ ঘটনার সাথে আরো যারা জড়িত রয়েছেন তাদের সবাইকে আইনের আওতায় আনার জন্য জোর দাবি জানাচ্ছি।

মানববন্ধনে বক্তারা আরোও বলেন, শুধু সাংবাদিক গোলাম রাব্বানীকে নয়, সারা দেশ জুড়ে চলছে সাংবাদিকদের হত্যা, হয়রানি মূলক মামলা, হামলা, অত্যাচার সহ নানা ধরণের অবিচারের সম্মুখীন হচ্ছে সাংবাদিকরা। অথচ সাংবাদিকদেরকে বলা হয় জাতির বিবেক, জাতির আয়না, জাতির চতুর্থ স্তম্ভ। মহান এই পেশারটির সাথে যারা জড়িত তাদের কণ্ঠনালী চেপে ধরার জন্য, সারা দেশব্যাপী মেতে উঠেছে বিভিন্ন রাজনৈতিক লেবাসধারী কিছু ব্যক্তি এবং সন্ত্রাসীরা। এদের বিরুদ্ধে প্রশাসন সঠিক উদ্যোগ গ্রহণ না করলে হয়তো আগামী দিনগুলোতে এসব নৈরাজ্য মূলক তাণ্ডব চালাতেও তারা পিছু হটবে না, বিভিন্ন রাজনৈতিক নেতাদের অপকর্ম নিয়ে পত্রপত্রিকা সহ টেলিভিশনগুলোতে নিউজ প্রকাশিত হলেও তাদের বিরুদ্ধে তেমন কোন ব্যবস্থা নিতে আমরা দেখি না। কিন্তু সাংবাদিকদের বেলায় হলে তাদেরকে কোন ধরনের ছাড় দেওয়া হয় না, তাদেরকে মিথ্যা মামলা দিয়ে ফাঁসানো হয়।

এমনকি তাদের বাড়িতেও হামলা হয়, অথচ প্রশাসনের চোখ ফাঁকি দেওয়া অপরাধীদের বিভিন্ন অপরাধের চিত্র সাংবাদিকদের মাধ্যমে প্রিন্ট মিডিয়াসহ ইলেকট্রিক মিডিয়ায় উঠে আসে। যেখানে পুলিশ প্রশাসন সহ বিভিন্ন প্রশাসনিক দপ্তর গুলো সাংবাদিকদের কাজে সহায়তা করার নিয়ম থাকলেও তারা তা করেনা। তাই আসুন আমরা সকল ভেদাভেদ ভুলে সকল সাংবাদিক এবং সাংবাদিক সংগঠনগুলো ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করি, আর অপরাধীদের বিরুদ্ধে সাংবাদিকের কলম চলছে এবং চলবেই, এই কলম যারা থামাতে আসবে তাদেরকে এক বিন্দু পরিমাণ ছাড় দেয়া হবে না।

মানববন্ধনে আরো উপস্থিত ছিলেন, উত্তরা প্রেসক্লাবের সভাপতি বদরুল আলম, সাধারণ সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহতাব ফারাহী, সাবেক সভাপতি রাসেল খান, সাবেক সভাপতি রফিকুল ইসলাম, বর্তমান সহ-সভাপতি-রিপন মিয়া, সাপ্তাহিক মহানগর বার্তা পত্রিকার সম্পাদক ও প্রকাশক মো: আসাদুজ্জামান (রােজ), মহিলা সম্পাদক মাই টিভি প্রতিনিধি মাহমুদা আক্তার পুষন, দপ্তর সম্পাদক-হামিম, বি ডব্লিউ”র সাংবাদিক-রানা, সরোজমিন পত্রিকার-রিপোর্টার-মোসারফ হোসেন, সিনিয়র সাংবাদিক মনির হোসেন জীবন, আব্দুল আল মামুন, মনিরুজ্জামান, বিজয় টিভি প্রতিনিধি আজাদ, সাংবাদিক মিরাজ সিকদার, এশিয়ান ইনকোয়ারীর জালাল হোসেন, মাইটিভির বৃহত্তর উত্তরার মাইটিভি প্রতিনিধি শাহজালাল জুয়েল সহ উত্তরার প্রায় অর্ধশত সাংবাদিকবৃন্দ।

উল্লেখ্য, সাংবাদিক নাদিম জামালপুর জেলার বকশিগঞ্জ উপজেলার নিলাখিয়া ইউনিয়নের গোমেরচর গ্রামের আবদুল করিমের পুত্র। গত বুধবার (১৪ জুন) অফিসের কাজ শেষে রাত ১০টার দিকে মোটরসাইকেলে যোগে বাড়ি ফিরছিলেন সাংবাদিক গোলাম রাব্বানী নাদিম ও তার সহকর্মী আল মুজাহিদ বাবু। পতিমধ্যে বকশিগঞ্জ পাথাটিয়ায় সন্ত্রাসীরা অতর্কিত আক্রমণ করে চলন্ত মোটরসাইকেল থেকে তাকে ফেলে দেয়। এরপর দেশীয় অস্ত্রধারী ১০-১২ জন দুর্বৃত্ত তাকে সড়ক থেকে মারধর করতে করতে টেনে হিঁচড়ে অন্ধকার গলিতে নিয়ে যান এবং তার মাথা ও শরীরের বিভিন্ন স্থানে এলোপাতাড়ি আঘাত করেন। সে সময় সহকর্মী মুজাহিদ তাদের আটকাতে গেলে তাকেও মারধর করা হয়। পরে মুমূর্ষু অবস্থায় সহকর্মী মুজাহিদ ও স্থানীয়রা নাদিমকে হাসপাতালে নিয়ে যান। কিন্তু আঘাত গুরুতর হওয়ায় সেখানকার চিকিৎসক তাকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ (মমেক) হাসপাতালে পাঠান। এরপর বৃহস্পতিবার (১৫ জুন) বেলা পৌনে ৩টার দিকে মমেক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় নাদিমের মৃত্যু হয়।

আইনশৃঙ্খলা বাহিনী সূত্রে জানা গেছে, শনিবার (১৭ জুন) সকাল ৭টার দিকে পঞ্চগড়ের সীমান্তবর্তী এলাকা দেবীগঞ্জ উপজেলার চিলাহাটি ইউনিয়নের চর তিস্তাপাড়া বকশীগঞ্জ সদর উপজেলার সাধুরপাড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মাহমুদুল আলম বাবুকে তার বোনের বাসা থেকে আটক করেছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী।

বকশীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সোহেল রানাকে জানান, র‌্যাবকে তার বোনের বাড়ির ঠিকানা দেওয়া হলে সেখানে গিয়ে তারা চেয়ারম্যান বাবুকে আটক করেছে।

পঞ্চগড় জেলার দেবিগঞ্জ উপজেলা ১ নম্বর চিলাহাটি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান হারুন অর রশিদ বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, আজ শনিবার সকাল ৭টার দিকে তাকে ধরে নিয়ে গেছে।

এর আগে শুক্রবার (১৬ জুন) চেয়ারম্যান বাবুকে আওয়ামী লীগ থেকে সাময়িকভাবে বহিষ্কার করা হয়। শুক্রবার বকশীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শাহীনা বেগম ও সাধারণ সম্পাদক ইসমাইল হোসেন তালুকদার বাবুল স্বাক্ষরিত চিঠিতে সাময়িক বহিষ্কারের এ সিদ্ধান্ত নেন।

এদিকে, সাংবাদিক গোলাম রাব্বানী নাদিমকে হত্যার ঘটনায় আজ শনিবার পর্যন্ত আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর এ ঘটনায় ১০জনকে আটক করা হয়েছে বলে জানিয়েছে জামালপুর জেলা পুলিশ সুপার।

শুক্রবার (১৬ জুন) রাতে এতথ্য নিশ্চিত করেছেন জামালপুরের পুলিশ সুপার নাছির উদ্দিন আহমেদ।
তদন্তের কারণ দেখিয়ে নতুন আটক চারজনের নাম জানাননি তিনি। তবে, গত দুই দিনে আটক ছয়জন হলেন- গোলাম কিবরিয়া সুমন, মো. তোফাজ্জল, আয়নাল হক, মো. কফিল উদ্দিন, শহিদ, ফজলু।

জামালপুরের পুলিশ সুপার নাছির উদ্দিন আহমেদ বলেন, সাংবাদিক হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় এখনো থানায় মামলা হয়নি। ভুক্তভোগী পরিবারের সঙ্গে আমি কথা বলেছি দ্রুত মামলা হবে। এ ঘটনায় আগে দুই ধাপে ছয়জনকে আটক করা হয়েছে। ইতোমধ্যে আরও চারজনকে আমরা আটক করতে সক্ষম হয়েছি। তদন্তের কারণে তাদের নাম গোপণ রাখা হয়েছে৷

উল্লেখ্য, নিহত সাংবাদিক নাদিমের পরিবারের সদস্যদের অভিযোগ, জামালপুরের বকশিগঞ্জের সাধুরপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মাহামুদুল আলম বাবুর বিরুদ্ধে একাধিক সংবাদ প্রকাশ করায় সাংবাদিক গোলাম রব্বানী নাদিমকে খুন করা হয়েছে বলে দাবি পরিবারের।

এই সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রযুক্তি সহায়তায়: সিসা হোস্ট