1. [email protected] : admin :
  2. [email protected] : editor :
  3. [email protected] : moshiur :
বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪, ০৮:০৮ পূর্বাহ্ন

আমি কোনও ভুল করিনি : ট্রাম্প

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :
  • প্রকাশের সময় : শুক্রবার, ২৫ আগস্ট, ২০২৩
  • ৮৪ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

নিজেকে নির্দোষ দাবি করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। তার দাবি, তিনি কোনও ভুল করেননি। নির্বাচনী জালিয়াতি ও ষড়যন্ত্রের অভিযোগে বৃহস্পতিবার (২৪ আগস্ট) গ্রেপ্তার ও পরে ছাড়া পাওয়ার পর ট্রাম্প এই দাবি করেন।

একইসঙ্গে তার বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলাকে ‘বিচার ব্যবস্থার জন্য উপহাস’ বলেও অভিযোগও করেন তিনি। শুক্রবার (২৫ আগস্ট) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে বার্তাসংস্থা এএফপি।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, জর্জিয়ায় নির্বাচনী জালিয়াতি ও ষড়যন্ত্রের অভিযোগে বৃহস্পতিবার আনুষ্ঠানিক গ্রেপ্তারের পর এই ঘটনাকে ‘বিচার ব্যবস্থার জন্য উপহাস’ বলে সমালোচনা করেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। একইসঙ্গে তার বিরুদ্ধে দায়ের করা এই মামলাকে তিনি ‘নির্বাচনে হস্তক্ষেপ’ বলেও অভিহিত করেন।

এর আগে বৃহস্পতিবার বিকেলে জর্জিয়ার ফুলটন কারাগারে আত্মসমর্পণ করেন তিনি। পরে তাকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়। অবশ্য এর ২০ মিনিটের মাথায় জামিনে মুক্ত হন তিনি। ২ লাখ মার্কিন ডলারের বন্ডে তাকে জামিন দেওয়া হয়।

সিএনএন বলছে, গ্রেপ্তারের পর অবশ্য সাবেক এই রিপাবলিকান প্রেসিডেন্টকে বেশিক্ষণ কারাবন্দি থাকতে হয়নি। তিনি কারাগার ছিলেন ২০ মিনিটের মতো। সেসময় তার আঙুলের ছাপ ও মুখের ছবি (মাগ শট) নেওয়া হয় এবং পরে তা প্রকাশ করা হয়।

এদিকে জামিনে মুক্তি পাওয়ার পর ট্রাম্প বিমানবন্দরের উদ্দেশে কারাগার ত্যাগ করেন। একইসঙ্গে তার বিরুদ্ধে আনা সকল অভিযোগও অস্বীকার করেন তিনি। জর্জিয়া অঙ্গরাজ্যের রাজধানী আটলান্টা ত্যাগের আগে ট্রাম্প সাংবাদিকদের বলেন, ‘এখানে যা ঘটেছে তা ন্যায়বিচারের সঙ্গে প্রতারণা। আমরা কোনও কিছু ভুল করিনি। আমি কোনও ভুল করিনি।’

সাবেক এই রিপাবলিকান প্রেসিডেন্ট অভিযোগ করেন, ‘তারা যা করছে তা হলো নির্বাচনে হস্তক্ষেপ।’

অবশ্য ট্রাম্প ঠিক কার বিরুদ্ধে হস্তক্ষেপের অভিযোগ করছেন তা উল্লেখ করেননি। তবে তিনি নিয়মিতভাবে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন এবং অন্যান্য ডেমোক্র্যাটদের বিরুদ্ধে তার পুনরায় নির্বাচন করার কাজে বাধা দেওয়ার অভিযোগে নিন্দা করে চলেছেন।

উল্লেখ্য, ২০২৪ সালের নভেম্বরে যুক্তরাষ্ট্রে পরবর্তী প্রেসিডেন্ট নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে এবং ট্রাম্প ইতোমধ্যেই সেই নির্বাচনে লড়াইয়ের ঘোষণা দিয়ে রেখেছেন। এছাড়া প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী হিসেবে মনোনয়নের দৌড়ে থাকা রিপাবলিকান পার্টির অন্য নেতাদের চেয়ে জনমত জরিপে ট্রাম্প এগিয়েও রয়েছেন।

এই পরিস্থিতিতে তার বিরুদ্ধে আনা এই অভিযোগকে রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত বলেও দাবি করে আসছেন সাবেক এই মার্কিন প্রেসিডেন্ট।

প্রসঙ্গত, ট্রাম্পের বিরুদ্ধে যে অভিযোগ আনা হয়েছে সেটির সূত্রপাত ২০২১ সালের ২ জানুয়ারি। ওইদিন জর্জিয়ার প্রধান নির্বাচনী কর্মকর্তা ব্র্যাড র‌্যাফেনসপারগারকে ফোন করে অঙ্গরাজ্যটিতে নিজের পরাজয় ঠেকানোর ব্যবস্থা করতে বলেন ট্রাম্প। কিন্তু ব্র্যাড তার এ অনুরোধ প্রত্যাখ্যান করেন।

এর চারদিন পর ২০২১ সালের ৬ জানুয়ারি ট্রাম্পের সমর্থকরা মার্কিন গণতন্ত্রের প্রতীক ক্যাপিটল হিলে আক্রমণ করেন। ওইদিন নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনকে সিনেটের স্বীকৃতি দেওয়ার কথা ছিল।

অবশ্য জর্জিয়ায় কোনও ধরনের অপরাধ করার অভিযোগ অস্বীকার করেছেন ট্রাম্প। ২ লাখ মার্কিন ডলারের বন্ডে ছাড়া পাওয়ার পর ট্রাম্প তার বিরুদ্ধে আনা সকল অভিযোগকে রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত বলে আখ্যায়িত করেন।

মার্কিন সংবাদমাধ্যম বলছে, বৃহস্পতিবার নির্বাচনে কারচুপি সংক্রান্ত ১৩টি অভিযোগের ভিত্তিতে জর্জিয়া জেলে গ্রেপ্তার করা হয় ডোনাল্ড ট্রাম্পকে। তবে সেই গ্রেপ্তারির স্থায়িত্ব ছিল মাত্র ২০ মিনিট। তারপরই জামিনে ছাড়া পেয়ে যান ৭৭ বছর বয়সী এই রিপাবলিকান নেতা।

এই সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রযুক্তি সহায়তায়: সিসা হোস্ট