1. [email protected] : admin :
  2. [email protected] : editor :
  3. [email protected] : moshiur :
মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ০১:৩৫ অপরাহ্ন

অল্পের জন্য রক্ষা পেলেন টেকনাফগামী জাহাজের ২ শতাধিক যাত্রী

মহানগর রিপোর্ট :
  • প্রকাশের সময় : বুধবার, ১৫ ফেব্রুয়ারী, ২০২৩
  • ৩০২ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

অল্পের জন্য বড় দুর্ঘটনার হাত থেকে রক্ষা পেয়েছে টেকনাফ-সেন্ট মার্টিন রুটে চলাচলকারী পর্যটকবাহী দুটি জাহাজ। প্রায় উল্টে ও ডুবতে যাওয়া জাহাজ দুটির একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে। ভিডিও ভাইরাল হাওয়ার পর থেকে পর্যটকদের নিরাপত্তা নিয়ে চলছে ব্যাপক আলোচনা-সমালোচনা। কিন্তু জাহাজ মালিকরা বলছেন ভিন্ন কথা।

মঙ্গলবার (১৪ফ্রেবুয়ারি) বিকেল ৪টার দিকে সেন্ট মার্টিন থেকে ফেরার পথে এমভি পারিজাত ও সুকান্ত নামক দুইটি জাহাজ উত্তাল সমুদ্রের ঢেউয়ে দুল খেয়ে ডুবতে যাচ্ছিল। তবে নাবিকের দক্ষতায় রক্ষা পায় জাহাজ দুইটি। দুটি জাহাজে দুই শতাধিক পর্যটক ছিলেন।

ফেসবুকে ভাইরাল হওয়া ভিডিওতে দেখা যায়, সমুদ্রের মাঝে বাতাসের তীব্র গতি ও সাগরে ঢেউয়ে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলে জাহাজ দুটি। সুকান্ত বাবু নামে জাহাজটি একবার পানির ভেতর যায় আবার বেরিয়ে আসে। জাহাজ দুটি দুলতে থাকায় জাহাজে থাকা পর্যটকরা আতঙ্কিত হয়ে পড়েন।

ওই সময় পারিজাত জাহাজে থাকা খোরশেদ নামে এক পর্যটক বলেন, নতুন করে জীবন ফিরে পেলাম। মনে করেছিলাম প্রায় ডুবে যাব। কিন্তু অভিজ্ঞ নাবিকের কারণে আমরা উল্টে যাওয়া থেকে রক্ষা পাই।

রাহাত নামে আরেক পর্যটক বলেন, প্রায় ডুবতে বসেছিল সুকান্ত বাবু নামের জাহাজটি। আল্লাহ রক্ষা করেছে। আর জীবনেও সেন্ট মার্টিন যাব না।

এ ঘটনায় সর্বত্র আলোচনা-সমালোচনা চলছে। তবে ভিন্ন কথা বলছেন জাহাজ মালিক ও জাহাজ মালিকদের সংগঠন স্কোয়াবের সভাপতি তোফায়েল আহমেদ। তিনি বলেন, পূর্ণিমার কারণে আজ জাহাজ একটু দুল ছিল। তবে এটি স্বাভাবিক ঘটনা। সাগরে যখন পানি ও বাতাসের গতি থাকে তখন একটু রোলিং হয়। তখন জাহাজ একটু দুলতে থাকে। এটি আতঙ্কের কিছু নয়।

এই সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রযুক্তি সহায়তায়: সিসা হোস্ট