1. [email protected] : admin :
  2. [email protected] : editor :
  3. [email protected] : moshiur :
শনিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৪, ০৮:৪০ পূর্বাহ্ন

৩০০ রোবোটিকস ক্লাব তৈরি করছি: পলক

মহানগর ডেস্ক :
  • প্রকাশের সময় : শনিবার, ২৮ জানুয়ারী, ২০২৩
  • ৩০৬ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেছেন, চতুর্থ শিল্প বিপ্লবকে সামনে রেখে দেশের তরুণ-তরুণী ও শিক্ষার্থীদের নিয়ে রোবটিকস ক্লাব তৈরি করার লক্ষ্যে ৩০০টি সংসদীয় আসনভিত্তিক ৩০০টি স্কুলে রোবোটিকস ফেব্রিকেশন ল্যাব ও ক্লাব গঠন করা হচ্ছে।

বৃহস্পতিবার (২৬ জানুয়ারি) রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে জেলা প্রশাসক (ডিসি) সম্মেলন শেষে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন প্রতিমন্ত্রী।

তিনি বলেন, ‘আমাদের যে ১৩ হাজার শেখ রাসেল ডিজিটাল ল্যাব আছে, সেখানেও আমরা রোবোটিকস ক্লাব তৈরি করব।’

মাঠ প্রশাসন সরকারের কার্যক্রম বাস্তবায়নে মুখ্য ভূমিকা পালন করে থাকে মন্তব্য করে তিনি বলেন, ‘এর জন্য আমাদের সরকারের পক্ষ থেকে কিছু নির্দেশনা দিয়েছি এবং জেলা প্রশাসকদের কাছ থেকেও আমরা কিছু প্রশ্ন পেয়েছি।’

প্রধানমন্ত্রীর ২০৪১ সালের ভিশনে স্মার্ট বাংলাদেশ বিনিমার্ণে যে ৪টি স্তম্ভ রয়েছে, সেই লক্ষ্যে জেলা প্রশাসকদের কাজ করতে উৎসাহিত করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন প্রতিমন্ত্রী।

জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, ডিজিটাল বাংলাদশের সাফল্যের ওপর ভিত্তি করে স্মার্ট সিটিজেন, স্মার্ট ইকোনমি, স্মার্ট সরকার ও স্মার্ট সোসাইটি গড়ে তোলার জন্য জেলা প্রশাসকদের কিছু মৌলিক নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। সেই সঙ্গে পেপারলেস অফিস ওয়ার্ককে উৎসাহিত করা হয়েছে।

ক্যাশলেস সোসাইটি তৈরি করার পাশাপাশি স্মার্ট বাংলাদেশ গড়তে জেলা প্রশাসকদের একযোগে কাজ করতে হবে বলে মন্তব্য করেন তিনি।

এ বছর আইসিটি ডিভিশন থেকে স্মার্ট জেলা ইনোভেশন চ্যালেঞ্জ ঘোষণা করা হয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘এতে একটি জেলার জেলা প্রশাসকের নেতৃত্বে সর্বোচ্চ এক কোটি টাকার একটি পুরস্কার ঘোষণা করেছি। যাতে করে প্রতিযোগিতার আবহ বিরাজ করে।’

প্রতিমন্ত্রী দুইটি গুরুত্বপূর্ণ প্রস্তাবের কথা উল্লেখ করে বলেন, ‘আমাদের দেশে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ব্যবহারকারী প্রায় ৫ থেকে ৬ কোটি এবং ইন্টারনেট ব্যবহারকারী ১৩ কোটি। তাদের সাইবার জগৎকে নিরাপদ রাখার জন্য ডিজিটাল লিটারেসির গুরুত্ব অনেক। এজন্য ছাত্র, শিক্ষক, সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারী, পুলিশ সবাইকে নিয়ে প্রতি মাসে আইসিটির যে কমিটি আছে তাদের সঙ্গে জেলা ও উপজেলায় বৈঠক করার নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।’

তিনি বলেন, প্রত্যেকটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ডিজিটাল লিটারেসি, সাইবার সিকিউরিটি ও সোস্যাল মিডিয়া ম্যানেজমেন্ট সম্পর্কে সচেতনতা বৃদ্ধিতে তারা যাতে যথাযথ উদ্যোগ নেন, সেদিকেও নজর দিতে হবে।

এই সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রযুক্তি সহায়তায়: সিসা হোস্ট